Uncategorized

সুন্দর নাম রাখা সন্তানদের হক ও নবীজীর সুন্নাত

(১) হযরত আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রাযিঃ) বলেছেন, যার সন্তান জন্মগ্রহণ করে সে যেন তার সুন্দর নাম রাখে এবং তাকে সুশিক্ষা দেয় এবং প্রাপ্ত বয়স্ক হলে তাকে বিয়ে দেয় ।(প্রাপ্ত বয়স্ক হলে বিবাহ না দেয়ার কারণে কোন গােনাহ করলে সে গােনাহ্ তার পিতার উপর বর্তাবে।

(বায়হাকী)

(২) হযরত আবদুল্লাহ বিন আব্বাস (রাযিঃ) বলেন, তারা (সাহাবাগণ) বললেন ইয়া রাসূলুল্লাহ! পিতার হক কি তাতাে আমরা জানলাম কিন্তু পিতার প্রতি সন্তানের হক কি? রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওসাল্লাম বললেন, পিতা সন্তানের সুন্দর নাম রাখবে এবং তাকে সুশিক্ষা দিবে ।

(বায়হাকী)

(৩) রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, পিতা মাতার প্রতি সন্তানের হক এই যে, তার সুন্দর নাম রাখবে, বালেগ হলে তার বিয়ের ব্যবস্থা করবে এবং তাকে কুরআনে কারীম (ধর্মীয় শিক্ষা) শিক্ষা দিবে। (কানযুল উম্মাল)

সন্তানের সুন্দর নাম রাখা পিতার উপর গুরুত্বপূর্ণ একটি দায়িত্ব তাই প্রত্যেক পিতার কর্তব্য হলাে, সে যেন এ দায়ীত্বকে সুন্দর ও সুচারুরূপে পালন করে । অর্থবােধক, মার্জিত, রুচিসম্পন্ন মুসলমানী নামে শিশুর নামকরণ করলে শিশুর অনাগত জীবনে মঙ্গল ও কল্যাণ বয়ে আনতে পারে।

See also  Download Essentials | Multipurpose WordPress Theme

(৪) রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, কিয়ামতের দিন । | তােমাদেরকে তােমাদের নাম ও তােমাদের পিতার নাম সহকারে ডাকা হবে । | অতএব তােমরা সন্তানের সুন্দর (মুসলমানী) নামে নামকরণ কর।

(আবু দাউদ)

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button